Blog, Health&Beauty, Lifestyle

চোখের যত্ন নেওয়া খুবই জরুরি।

Face Facts Collagen & Q10 Eye Cream 25 ml
কোলাজেন এবং ইউবিকুইনোন দিয়ে সমৃদ্ধ আই ক্রিম
➡ চোখের রিংকেল রিমুভ করে।
চোখকে ব্রাইট করতে সহায়তা করে।
➡ ত্বকে শক্তি যোগায়।
➡ বার্ধক্য থেকে ত্বককে রক্ষা করুন।
➡ ময়েশ্চারাইজ করে এবং ফোলাভাব দূর করে।
➡ ডার্ক সার্কেল রিমুভ করে।
➡ মেকআপ করার আগে ব্যাবহার করুন।
➡ ব্যবহারের পর ত্বক তারুণ্যময় দেখায়।
➡প্যারাবেন ফ্রি
Imported From Uk

বিভিন্ন কারণেই কালি পড়তে পারে চোখের নিচে। ঘুম না হওয়া বা কম হওয়া থেকে শুরু করে জিনগত কারণেও কালি পড়ে চোখের পাতার নিচে। সুন্দর টানা টানা কালো চোখ সবার পছন্দ হলেও চোখের নিচের কালি কিন্তু একদমই কারও পছন্দ নয়। কিন্তু জীবনযাপন করতে গিয়ে বিভিন্ন কারণেই রাত জাগা হয়। ফলে তৈরি হয় ডার্ক সার্কেল। আবার কখনও কখনও জিনগত কারণেও হয়ে থাকে এমনটা। চোখের নিচের ত্বক স্পর্শকাতর ও গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় অন্যান্য অঙ্গের মতো চাইলেই যত্ন নেওয়া যায় না চোখের।চোখের যত্ন নেওয়া খুবই জরুরি। এবার চোখের নিচে পড়া অনাকাঙ্ক্ষিত সেই কালি দূর করার উপায় জেনে নেওয়া যাক-

অ্যাই ম্যাসাজ : চশমা পরে অফিস বা বাসায় থেকে ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের দিকে টানা তাকিয়ে কাজ করার ফলে চোখের ওপর প্রচণ্ড চাপ পড়ে। এছাড়াও প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে মোবাইলের স্ক্রিনেও চোখ রাখা হয় নিয়মিত। এতে করে চোখের পেশি ক্লান্ত হয়ে পড়ে। তাই কাজের ফাঁকে ফাঁকে ম্যাসাজ করুন চোখে। রক্ত সঞ্চালন ভালো হবে এবং একারণে চোখও ভালো থাকবে।

সূর্যের আলো গ্রহণ : প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি চোখে সূর্যের দিকে তাকান। হালকা তাপ পড়বে চোখে। এতে করে চোখ ভালো থাকবে এবং সেই সঙ্গে চোখের রেটিনাও ঠিক থাকবে। চোখের নিচে কালিও পড়বে না।

গরম পানির ভাপ : হালকা গরম পানিতে এক টুকরো তুলো ভিজিয়ে চেপে রাখুন চোখে। তবে সাবধান, চোখের ওপর চাপ প্রয়োগ করা যাবে না। দিনে দুইবার করে এভাবে ভাপ নিতে থাকুন। নিয়মিত এভাবে ভাপ নিতে থাকলে চোখের ময়লা দূর হবে এবং চোখ ভালো থাকবে। সেই সঙ্গে চোখের পেশির আরাম হবে।

ঠাণ্ডা পানি : টানা কাজ করার মাঝে হালকা ঠাণ্ডা পানি দিয়ে চোখ ধুয়ে নিন। এছাড়াও একটা পরিষ্কার কাপড় পানিতে ভিজিয়ে চোখ মুছে নেওয়া যেতে পারে। এতে করে চোখের ক্লান্তি দূর হবে এবং চোখ স্বস্তিবোধ করবে। যদি চোখে ব্যথা থাকে তাহলে কাপড়ের মধ্যে বরফের টুকরো নিয়ে ভাপ নিলে শিগগিরই উপকার পাবেন।

অ্যালোভেরা জেল : চোখের জন্য অ্যালোভেরা ম্যাসাজ সর্বদাই উপকারী। কাজ বা অন্য কোনো কারণে যদি চোখে খুব বেশি চাপ পড়ে তাহলে অ্যালোভেরা জেল দিয়ে ম্যাসাজ করুন। ম্যাসাজের ফলে রক্ত সঞ্চালন ভালো হবে। এভাবে নিয়মিত ম্যাসাজ করার ফলে চোখের অন্যান্য সমস্যাও দূর হবে। এছাড়াও চোখের নিচে পড়া কালো দাগও কয়েকদিনের মধ্যেই দূর হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

One thought on “চোখের যত্ন নেওয়া খুবই জরুরি।

  1. raiyan ajmeer says:

    Model:Priya Ananya

Leave a Reply

Your email address will not be published.