Blog, Health&Beauty, Lifestyle

চুলের ও ত্বকের জন্য তেল উপকারি…

নানা তেলের নানা গুণ। তেল দিয়ে রূপচর্চা তো করাই হয়। তবে তার জন্য তেল হওয়া চাই খাঁটি। চটকদার বিজ্ঞাপনের ভিড়ে খাঁটি জিনিস কিন্তু খুঁজে পাওয়া ভার। আবার সব তেল সব কাজে ব্যবহারের উপযোগীও নয়। কেমন হয় যদি ঘরেই বানানো যায় কোনো তেল? হয়তো একটু ঝুটঝামেলার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। তবে আদতেই কি বিষয়টা সেরকম? বিশেষজ্ঞের কাছ থেকে জেনে আসা যাক।

ঘরে নারকেল তেল বানানো সম্ভব বেশ সহজেই। সেই তেল অনায়াসেই প্রয়োগ করা যাবে ত্বকে। বাকি যেসব তেল ব্যবহার করা হয়, সেগুলোর মধ্যে কোনোটিই অবশ্য বাড়িতে তৈরি করার সুযোগ নেই। তবে নানা গুণের তেলের সমন্বয় করে নেওয়া যায় চুলের পুষ্টি নিশ্চিত করার জন্য। এমনটাই জানান হার্বস আয়ুর্বেদিক ক্লিনিকের আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ আফরিন মৌসুমি।

নারকেল তেল বানানো

একটি নারকেল কুরিয়ে নিন। এবার ব্লেন্ডারে ওই কোরানো নারকেলের সঙ্গে দুই কাপ গরম পানি নিন (বেশি পরিমাণ নারকেল নিলে সেই হিসাবেই পানি বাড়াতে হবে)। ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নেওয়ার পর ছেঁকে নারকেলের দুধ আলাদা করে নিন। নারকেলের দুধ অল্প আঁচে জ্বাল দিলেই তৈরি হয়ে যাবে তেল। তেল ঠান্ডা হলে ছেঁকে নিয়ে কাচের বোতলে রেখে দিন। ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় তিন মাস পর্যন্ত ভালো থাকে এই তেল। তবে এই তেল চুলের জন্য নয়।

ঘরে তৈরি নারকেল তেলে ত্বকের যত্ন

তেলে হয় ত্বকের যত্ন

নারকেল তেল আধা কাপ, গ্লিসারিন সিকি কাপ, অ্যালোভেরা জেল ২ টেবিল চামচ, ভিটামিন ই ক্যাপসুল ২-৩টি এবং আধা চা-চামচ গোলাপজল নিন। সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করুন। ময়েশ্চারাইজার হিসেবে প্রতিদিনই মুখের ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন এই মিশ্রণ। সব ধরনের ত্বকের জন্য যেকোনো ঋতুতেই এটি দারুণ ময়েশ্চারাইজার। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক থাকে ব্রণ থেকেও সুরক্ষিত। চাইলে পুরো শরীরেও ব্যবহার করা যাবে |

হাত-পায়ের কালচে ছোপ দূর করতে এই তেল কাজে লাগাতে পারেন অন্যভাবে। প্রথমে একটি কাচের বাটিতে ১ কাপ লেবুর রস নিয়ে তা এক দিনের জন্য (সারা দিন) রোদে রেখে দিন। পরদিন এই বাটিতে যোগ করুন ১ কাপ পরিমাণ ঘরে তৈরি নারকেল তেল আর আধা চা-চামচ কর্পূর। ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে কাচের বোতলে রেখে দিন। এই মিশ্রণ হাতে-পায়ে লাগাতে হবে রোজ।

চুলের জন্য তেল বানানো

চুলের জন্য তেল উপকারি

চুলের জন্য অবশ্য ঠিক তেল ‘বানানো’র সুযোগ নেই বাড়িতে। কিনে নানা তেল মিশিয়ে কাজে লাগানো যেতে পারে।

চুলের পর্যাপ্ত পুষ্টি নিশ্চিত করতে প্রয়োজন তিলের তেল ২ কাপ, শষে৴র তেল ১ কাপ, ক্যাস্টর অয়েল আধা কাপ, তিসির তেল সিকি কাপ এবং নিমের তেল ৬-৮ ফোঁটা। এসব তেল ভালোভাবে মিশিয়ে মাথার ত্বকে ও চুলে মালিশ করুন সপ্তাহে দুই দিন।

· অতিরিক্ত খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে খাঁটি নারকেল তেল ১ কাপ, তিসির তেল সিকি কাপ ও নিমের তেল ২ চা চামচ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার মাথার ত্বকে লেবুর রস ঘষে নিয়ে তেলের মিশ্রণ মালিশ করুন মাথার ত্বকে ও চুলে। এটিও ব্যবহার করতে হবে সপ্তাহে দুই দিন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.